ডা. এম এ সাত্তার সরকারের রোগ মুক্তি কামনা

ডা. এম এ সাত্তার সরকারের রোগ মুক্তি কামনা

এই সময়ের সম্মুখ যোদ্ধা স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. এম এ সাত্তার সরকার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। পেশাগত দ্বায়িত্বের পাশাপাশি তিনি বঙ্গবন্ধু পরিষদ পরিচালিত টেলি মেডিসিন কার্যক্রমে সকাল ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত বিনা মূল্যে সেবা সহ বহু সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত। সমস্ত রকম প্রতিকূলতাকে একে একে জয় করে নীরবে নিভৃতে দেশের মানুষের জন্য করোনা যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছিলেন। করোনাভাইরাস দেশে আঘাত হানার সঙ্গে সঙ্গে তার কাজ যেন বেড়ে গিয়েছিল অনেকগুণ। দিন-রাত এক করে কাজ করে গিয়েছেন, কোনো প্রকার অভিযোগ ছাড়াই। আজ তিনি নিজেই আক্রান্ত। এই বীর যোদ্ধার আশু রোগ মুক্তি কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের আহবায়ক সরদার মাহামুদ হাসান রুবেল। তিনি বলেন, সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা মানুষদের শত আতঙ্কের মাঝেও বেঁচে থাকার স্বপ্ন ছড়ানোর সব কৃতিত্ব চিকিৎসকদের। প্রতিটি পেশার একটি দায় থাকে। ডাক্তারদের দায় আছে চিকিৎসা দেয়ার। কিন্তু আমাদের দেশে দায়ের ঊর্ধ্বে করোনা আতঙ্কের মধ্যেও নিজের নিরাপত্তা অনিশ্চিত রেখে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি সরকারের কাছে অনুরোধ করেন, বিপদের সময় বন্ধু হয়ে পাশে থাকা চিকিৎসকদের মনোবল বাড়াতে শুধু আর্থিক প্রণোদনা নয়, নিশ্চিত করতে হবে সামাজিক সুরক্ষারও। ডাঃ সাত্তারের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সব ঋণ যেমন শোধ করা নয় তেমন সব কৃতজ্ঞতাও হয়তো ঢাকঢোল পিটিয়ে জানানো সম্ভব নয়। তবে আপনার মতো অদৃশ্য শক্তির বিরুদ্ধে অদম্য লড়ে যাওয়া চিকিৎসক ও চিকিৎসা কর্মীদের অন্তরের অন্তরস্থল থেকে জানাই শ্রদ্ধা ভালোবাসা। তিনি আরও বলেন, মানবতার জননী মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন এবং আপনার মতো সকল চিকিৎসক বীরদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছেন। সাহস রাখবেন, মনে রাখবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপনার পাশে সবসময় আছেন। পরিশেষে বলতে চাই আপনি একা নন, সারাদেশ আপনার পাশে আছে, শুভকামনা আপনার জন্য। আপনাদের মাধ্যমে আমরা জয়ী হব ইনশাআল্লাহ্‌ ।

What's Your Reaction?

like
5
dislike
3
love
9
funny
1
angry
0
sad
25
wow
1